Category: সেরা কবিতা

Show Posts in

কবিতাঃ সকাল বেলার পাখি -কাজী নজরুল ইসলাম

  সকাল বেলার পাখি কাজী নজরুল ইসলাম আমি হব সকাল বেলার পাখি সবার আগে কুসম-বাগে উঠব আমি ডাকি! সুয্যি মামা জাগার আগে উঠব আমি জেগে, হয়নি সকাল, ঘুমো এখন, মা বলবেন রেগে৷ বলব আমি _ আলসে মেয়ে ঘুমিয়ে তুমি থাক, হয়নি সকাল তাই বলে কি সকাল হবে না ক? …

বাংলা কবিতাঃ নিমন্ত্রণ -জসীম উদদীন

  নিমন্ত্রণ জসীম উদদীন তুমি যাবে ভাই যাবে মোর সাথে আমদের ছোট গাঁয় গাছের ছায়ায় লতায় পাতায় উদাসী বনের বায়; মায়া মমতায় জড়াজড়ি করি মোর গেহখানি রহিয়াছে ভরি, মায়ের বুকেতে, বোনের আদরে, ভায়ের স্নেহের ছায়, তুমি যাবে ভাই- যাবে মোর সাথে আমাদের ছোট গাঁয়। ছোট গাঁওখানি- ছোট নদী চলে, তারি একপাশ দিয়া, কালো …

বাংলা কবিতাঃ ছিন্নমুকুল -সত্যন্দ্রনাথ দত্ত

  ছিন্নমুকুল সত্যন্দ্রনাথ দত্ত সবচেয়ে যে ছোট্ট পিঁড়িখানি সেইখানি আর কেউ রাখে না পেতে ছোট থালায় হয় নাকো ভাত বাড়া জল ভরে না ছোট্ট গেলাসেতে; বাড়ির মধ্যে সবচেয়ে যে ছোট খাবার বেলায় কেউ ডাকে না তাকে, সবচেয়ে যে শেষে এসেছিল তারি খাওয়া ঘুচেছে সব-আগে। সবচেয়ে যে অল্পে ছিল …

বাংলা কবিতাঃ বনভোজন -গোলাম মোস্তফা

  বনভোজন গোলাম মোস্তফা নুরু, পুশি, আয়েশা, শফি সবাই এসেছে আম বাগিচার তলায় যেন তারা হেসেছে। রাঁধুনিদের শখের রাঁধার পড়ে গেছ ধুম, বোশেখ মাসের এই দুপুরে নাইকো কারো ঘুম। বাপ মা তাদের ঘুমিয়ে আছে এই সুবিধা পেয়ে, বনভোজনে মিলেছে আজ দুষ্টু কটি মেয়ে। বসে গেছে সবাই আজি বিপুল …

বাংলা কবিতাঃ নন্দলাল -দ্বিজেন্দ্রলাল রায়

নন্দলাল দ্বিজেন্দ্রলাল রায় নন্দলাল তো একদা একটা করিল ভীষণ পণ – স্বদেশের তরে, যা করেই হোক, রাখিবেই সে জীবন। সকলে বলিল, ‘আ-হা-হা কর কি, কর কি, নন্দলাল?’ নন্দ বলিল, ‘বসিয়া বসিয়া রহিব কি চিরকাল? আমি না করিলে কে করিবে আর উদ্ধার এই দেশ?’ তখন সকলে বলিল- ‘বাহবা বাহবা বাহবা বেশ।’ নন্দর ভাই কলেরায় …

বাংলা কবিতাঃ ট্রেন -শামসুর রাহমান

  ট্রেন শামসুর রাহমান ঝক ঝক ঝক ট্রেন চলেছে রাত দুপুরে অই। ট্রেন চলেছে, ট্রেন চলেছে          ট্রেনের বাড়ি কই ? একটু জিরোয়, ফের ছুটে যায় মাঠ পেরুলেই বন। পুলের ওপর বাজনা বাজে ঝন ঝনাঝন ঝন। দেশ-বিদেশে বেড়ায় ঘুরে নেইকো ঘোরার শেষ। ইচ্ছে হলেই বাজায় …

বাংলা কবিতাঃ আমার বাড়ি -জসীম উদদীন

  আমার বাড়ি জসীম উদদীন আমার বাড়ি যাইও ভোমর, বসতে দেব পিঁড়ে, জলপান যে করতে দেব শালি ধানের চিঁড়ে। শালি ধানের চিঁড়ে দেব, বিন্নি ধানের খই, বাড়ির গাছের কবরী কলা গামছা বাঁধা দই। আম-কাঁঠালের বনের ধারে শুয়ো আঁচল পাতি, গাছের শাখা দুলিয়ে বাতাস করব সারা রাতি। চাঁদমুখে তোর …

বাংলা কবিতাঃ ছুটি -রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

  ছুটি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর মেঘেরে কোলে রোদ হেসেছে বাদল গেছে টুটি, আজ আমাদের ছুটি ও ভাই আজ আমাদের ছুটি। কী করি আজ ভেবে না পাই পথ হারিয়ে কোন বনে যাই, কোন মাঠে যে ছুটে বেড়াই সকল ছেলে জুটি, আজ আমাদের ছুটি ও ভাই আজ আমাদের ছুটি। -সমাপ্ত-

বাংলা কবিতাঃ স্বদেশ -আহসান হাবীব

স্বদেশ আহসান হাবীব এই যে নদী নদীর জোয়ার নৌকা সারে সারে, একলা বসে আপন মনে বসে নদীর ধারে এই ছবিটি চেনা। মনের মধ্যে যখন খুশি এই ছবিটি আঁকি এক পাশে তার জারুল গাছে দু’টি হলুদ পাখি, এমনি পাওয়া এই ছবিটি কড়িতে নয় কেনা। মাঠের পরে মাঠ চলেছে নেই …

বাংলা কবিতাঃ চাষী -রাজিয়া খাতুন চৌধুরাণী

চাষী রাজিয়া খাতুন চৌধুরাণী সব সাধকের বড় সাধক আমার দেশের চাষা, দেশ মাতারই মুক্তিকামী, দেশের সে যে আশা। দধীচি কি তাহার চেয়ে সাধক ছিল বড়? পুণ্য অত হবে নাক সব করিলে জড়। মুক্তিকামী মহাসাধক মুক্ত করে দেশ, সবারই সে অন্ন জোগায় নাইক গর্ব লেশ। ব্রত তাহার পরের হিত, …

বাংলা কবিতাঃ পরিচয় -রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

  পরিচয় রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর একদিন দেখিলাম উলঙ্গ সে ছেলে ধুলি-’পরে বসে আছে পা-দুখানি মেলে। ঘাটে বসি মাটি ঢেলা লইয়া কুড়ায়ে দিদি মাজিতেছে ঘটি ঘুরায়ে ঘুরায়ে। অদূরে কোমললোম ছাগবৎস ধীরে চরিয়া ফিরিতেছিল নদী-তীরে-তীরে। সহসা সে কাছে আসি থাকিয়া থাকিয়া বালকের মুখ চেয়ে উঠিল ডাকিয়া। বালক চমকি কাঁপি কেঁদে ওঠে …

বাংলা কবিতাঃ হেমন্ত -সুফিয়া কামাল

  হেমন্ত সুফিয়া কামাল সবুজ পাতার খামের ভেতর হলুদ গাঁদা চিঠি লেখে কোন্ পাথারের ওপার থেকে আনল ডেকে হেমন্তকে? আনল ডেকে মটরশুঁটি, খেসারি আর কলাই ফুলে আনল ডেকে কুয়াশাকে সাঁঝ সকালে নদীর কূলে। সকাল বেলায় শিশির ভেজা ঘাসের ওপর চলতে গিয়ে হাল্কা মধুর শীতের ছোঁয়ায় শরীর ওঠে শিরশিরিয়ে। …