Category: মজার গল্প

Show Posts in

গল্পঃ ছুটি -রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

  ছুটি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর বালকদিগের সর্দার ফটিক চক্রবর্তীর মাথায় চট্ করিয়া একটা নূতন ভাবোদয় হইল, নদীর ধারে একটা প্রকাণ্ড শালকাষ্ঠ মাস্তুলে রূপান্তরিত হইবার প্রতীক্ষায় পড়িয়া ছিল ; স্থির হইল, সেটা সকলে মিলিয়া গড়াইয়া লইয়া যাইবে। যে ব্যক্তির কাঠ আবশ্যক-কালে তাহার যে কতখানি বিস্ময় বিরক্তি এবং অসুবিধা বোধ হইবে, …

গল্পঃ জোঁক -আবু ইসহাক

  জোঁক আবু ইসহাক সেদ্ধ মিষ্টি আলুর কয়েক টুকরো পেটে জামিন দেয় ওসমান। ভাতের অভাবে অন্য কিছু দিয়ে উদরপূর্তির নাম চাষী-মজুরের ভাষায় পেটে জামিন দেয়া। চাল যখন দুর্মূল্য তখন এ ছাড়া উপায় কি? ওসমান হুঁক্কা নিয়ে বসে। মাজু বিবি নিয়ে আসে রয়নার তেলের বোতল। হাতের তেলোয় ঢেলে সে …

গল্পঃ হ্যামিলনের বাঁশিওয়ালা

  হ্যামিলনের বাঁশিওয়ালা শহরটার নাম হামেল্ন৷ সবাই চেনে হ্যামিলন নামে৷ ছোট্ট, সাজানো, সুন্দর শহর হ্যমিলন৷ সেই শহরের মানুষের খুব দু:খ৷ সেখানে যেন ইদুর বন্যা হয়েছে৷ বলছি ১২৮৪ সালের কথা৷ হাজারে হাজারে ইঁদুর৷ এখানে সেখানে৷ ঘরের মধ্যে যাও সেখানেও ইঁদুর৷ এই ধরো কোন বাচ্চা স্কুলে যাবে, ব্যাগ গোছাচ্ছে, দেখা …

গল্পঃ হৈমন্তী -রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

  হৈমন্তী রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর কন্যার বাপ সবুর করিতে পারিতেন, কিন্তু বরের বাপ সবুর করিতে চাহিলেন না। তিনি দেখিলেন , মেয়েটির বিবাহের বয়স পার হইয়া গেছে , কিন্তু আর কিছুদিন গেলে সেটাকে ভদ্র বা অভদ্র কোনো রকমে চাপা দিবার সময়টাও পার হইয়া যাইবে । মেয়ের বয়স অবৈধ রকমে বাড়িয়া …

মজার গল্পঃ কুজো বুড়ি

  কুজো বুড়ি এক যে ছিল কুঁজো বুড়ি। সে লাঠি ভর দিয়ে কুঁজো হয়ে চলত, আর তার মাথাটা খালি ঠক-ঠক করে নড়ত। বুড়ির তিনটি কুকুর ছিল। একটা নাম রঙ্গা,  ভঙ্গা আর একটার নাম ভুতু। বুড়ি যাবে নাতনীর বাড়ি, তাই কুকুর তিনটাকে বলল, ‘তোরা যেন বাড়ি থাকিস, কোথাও চলে …

গল্পঃ মহেশ -শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের

  মহেশ শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের এক গ্রামের নাম কাশীপুর। গ্রাম ছোট, জমিদার আরও ছোট, তবু দাপটে তাঁর প্রজারা টুঁ শব্দটি করিতে পারে না – এমনই প্রতাপ। ছোট ছেলের জন্মতিথি পূজা। পূজা সারিয়া তর্করত্ন দ্বিপ্রহর বেলায় বাটি ফিরিতেছিলেন। বৈশাখ শেষ হইয়া আসে, কিন্তু মেঘের ছায়াটুকু কোথাও নাই, অনাবৃষ্টির আকাশ হইতে যেন …

গল্পঃ টুনটুনি ও রাজার গল্প

  টুনটুনি ও রাজার গল্প রাজার বাগানের কোণে টুনটুনির বাসা ছিল। রাজার সিন্দুকের টাকা রোদে শুকুতে দিয়েছিল, সন্ধ্যার সময় তার লোকেরা তার একটি টাকা ঘরে তুলতে ভুলে গেল। টুনটুনি সেই চকচকে টাকাটি দেখতে পেয়ে তার বাসায় এনে রেখে দিলে, আর ভাবলে, ‘ঈস! আমি কত বড়লোক হয়ে গেছি। রাজার …

গল্পঃ খরগোশ ও কচ্ছপের গল্প

  খরগোশ ও কচ্ছপের গল্প লেখকঃ ঈশপ একদা এক বনে এক খরগোশ আর কচ্ছপ পাশাপাশি বাস করত। দুই জনের মধ্যে বেশ বন্ধুত্বও ছিল। কিন্তু মাঝে মাঝে ঝগড়াঝাটি যে হতো না তা নয়। খরগোশ খুব জোরে ছোটে। যেন বাতাসের আগেই ছুটে চলে। আর কচ্ছপ? সে চলে ধীরে ধীরে হেলেদুলে। …

গল্পঃ বিলাসী -শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের

বিলাসী শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের পাকা দুই ক্রোশ পথ হাঁটিয়া স্কুলে বিদ্যা অর্জন করিতে যাই। আমি একা নই—দশ-বারোজন। যাহাদেরই বাটী পল্লীগ্রামে, তাহাদেরই ছেলেদের শতকরা আশি জনকে এমনি করিয়া বিদ্যালাভ করিতে হয়। ইহাতে লাভের অঙ্কে শেষ পর্যন্ত একেবারে শূন্য না পড়িলেও, যাহা পড়ে, তাহার হিসাব করিবার পক্ষে এই কয়টা কথা চিন্তা …

গল্পঃ বাঘ ও বক

বাঘ ও বক একদা, এক বাঘের গলায় হাড় ফুটেছিল। বাঘ অনেক চেষ্টা করেও হাড় বাহির করতে পারল না; যন্ত্রনায় অস্থির হয়ে, চারদিকে দৌড়ে বেড়াতে লাগল। সে যে জন্তুকে সামনে দেখে তাকেই বলে, ভাই হে! যদি তুমি আমার গলা হতে, হাড় বের করে দাও, তবে আমি তোমায় পুরস্কার দিব …

গল্পঃ বোকা কুমির ও শিয়াল পণ্ডিতের কথা

  বোকা কুমির ও শিয়াল পণ্ডিতের কথা উপেন্দ্রকিশোর রায় চৌধুরী  কুমির আর শিয়াল মিলে চাষ করতে গেল। কিসের চাষ করবে? আলুর চাষ। আলু হয় মাটির নীচে। তার গাছ থাকে মাটির উপরে, তা দিয়ে কোনো কাজ হয় না। বোকা কুমির সে কথা জানতো না। সে ভাবলে বুঝি আলু তার …

গল্পঃ টুনটুনি ও কুনোব্যাঙ

  টুনটুনি ও কুনোব্যাঙ অনেক দিন আগে এক বনে থাকত মস্তবড় এক কুনোব্যাঙ আর ছোট্ট এক টুনটুনি। দু’জনের মধ্যে ভারি দোস্তি। টুনটুনি থাকে ঝোপে ঝাড়ে, —- পাতায় তৈরী তার ছোট্ট বাসায়, আর কুনোব্যাঙ থাকে ঐ ঝোপের নীচে…… গর্তের ভেতর। একদিন কুনোব্যাঙ গেল বেড়াতে…… কাছেই, নয়া শহরে। ফিরে এসে …