Category: খেলাধুলা

Show Posts in

বাংলার খেলাঃ হা-ডু-ডু বা কাবাডি

হা-ডু-ডু বা কাবাডি খেলা বাংলাদেশের জাতীয় খেলা হা-ডু-ডু বা কাবাডি। জাতীয় খেলা এমন একটি খেলা যা কোনো জাতির সংস্কৃতির একটি স্বকীয় অংশ হিসেবে বিবেচিত হয়। হা-ডু-ডু বাংলাদেশের অন্যতম জনপ্রিয় খেলা। আন্তর্জাতিকভাবেও কাবাডি খেলার গ্রহণযোগ্যতা রয়েছে এবং বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় এ খেলা অনুষ্ঠিত হয়। বাংলাদেশে বিশেষ উৎসব, পালা-পার্বনে বেশ আড়ম্বরপূর্ণভাবে …

বাংলার খেলাঃ কানামাছি

কানামাছি খেলা কানামাছি একটা লোকজ খেলা। এটি খেলতে কোনো সরঞ্জাম লাগে না। শুধু এক টুকরো কাপড় আর কিছুটা জায়গা হলেই হয়ে যায়। এমনকি মাঠ, ছাদ বা ঘরের মধ্যেও খেলতে কোনো সমস্যা হয় না। শুধু ‘কানা’ যে হবে তাকে একটু হাঁটাহাঁটি করার যায়গা করে দিতে পারলেই অনেক। ঘরে যদি …

বাংলার খেলাঃ মোরগ লড়াই

  মোরগ লড়াই মোরগ লড়াই বাংলাদেশ ও ভারতবর্ষের পশ্চিমবঙ্গে বিভিন্ন বিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রিড়া প্রতিযোগিতায় এই খেলা আয়োজন করা হয়ে থাকে। এটি সাধারনত ছেলেদের খেলা। গ্রামাঞ্চলের ছেলেদের কাছে এটি অতন্ত্য জনপ্রিয় একটি খেলা। “নিয়মকানুন” মোরগ লড়াই খেলায় একদল ছেলে গোল হয়ে একপায়ে দাড়িয়ে থাকে। দুই হাত দিয়ে অপর পা পিছনে ভাজ করে রাখতে …

বাংলার খেলাঃ ষোল গুটি

ষোল গুটি খেলা ষোল গুটি বাংলাদেশের গ্রামীন পুরুষদের অন্যতম প্রধান খেলা। অলস অবসরে গ্রামের যুবক ও মধ্যবয়সী পুরুষেরা ষোলগুটি খেলে। মাটিতে দাগ কেটে শুকনো ডাল ভেঙ্গে গুটি বানিয়ে চলে এই দীর্ঘমেয়াদি খেলা। খেলার এত সহজ সরঞ্জাম গ্রামবাসীর উত্সব মুখর মনের বহিঃপ্রকাশকেই প্রমাণ করে। সাধারণত মাটিতে দাগ কেটে ষোল গুটির ঘর বানানো হয়। প্রতি …

বাংলার খেলাঃ লুডু খেলা 

লুডু খেলা  লুডু খেলা বাংলাদেশে অন্যতম বিনোদন হিসেবে বিবেচিত। ঘরের বিছানায় অথবা মাটিতে মাদুর পেতে কৈশোর অতিক্রান্ত ছেলে মেয়েরা এ খেলাটি খেলে থাকে। এই খেলাটির সরঞ্জাম বাণিজ্যিক ভিত্তিতে উৎপাদন করা হয়। গ্রামের বিবাহিত মহিলারাও অবসর সময়ে এই খেলাটি খেলে থাকে। লুডু বিভিন্ন প্ৰকার হয়ে থাকে। যে সকল লুডু খেলার প্ৰচলন বাংলাদেশে …

বাংলার খেলাঃ লাটিম খেলা

  লাটিম খেলা লাটিম বাংলাদেশের অন্যতম একটি গ্রামীন খেলার উপকরণ। আগে সুতার মিস্ত্রিরাই গ্রামের কিশোরদেরকে লাটিম বানিয়ে দিতো । তারা সাধারণত পেয়ারা ও গাব গাছের ডাল দিয়ে এই লাটিম তৈরি করতো। নির্বাচিত পাট থেকে লাটিমের জন্য লতি বা ফিতা বানানো হতো। বর্তমানে বাণিজ্যিক ভিত্তিতে তুলাজাতীয় নরম কাঠ দিয়ে লাটিম এবং গেঞ্জির কাপড় …

বাংলার খেলাঃ মার্বেল খেলা

  মার্বেল খেলা বাংলাদেশের গ্রামীন কিশোর ছেলেদের সবচেয়ে আকর্ষণীয় খেলা মার্বেল। কোন কোন অঞ্চলে মার্বেল খেলাকে বিঘত খেলাও বলে। সম্ভবত অভিভাবকদের নিষেধাজ্ঞাই এই খেলার প্রতি কিশোরদের অদম্য আকর্ষণ সৃষ্টি করে। এই খেলার নিস্পত্তি হয় অন্যের মার্বেল খেলে জিতে নিজের করে নেবার মাধ্যমে। “খেলার নিয়মাবলী” মার্বেল খেলার জন্য কমপক্ষে দুইজন খেলোয়াড় …

বাংলার খেলাঃ পুতুল খেলা

পুতুল খেলা পুতুল খেলা বাংলাদেশের গ্রমীন শিশুদের কাছে অন্যতম জনপ্রিয় খেলা। এটি সাধারনত মেয়েরা বেশি খেলে থাকে। দেশের সর্বত্রই পুতুল খেলা সমান জনপ্রিয়। পুতুল খেলেনি এমন মেয়ে বাংলাদেশে নেই বললো চলে। বর্তমানে পুতুল শৌখিন মানুষের সংগ্রহেরও বস্তু। পুতুল সাধারনত মানবাকৃতিতে মাটি, কাঠ অথবা কাপড় দিয়ে তৈরি করা হয়। পুতুল সাধারনত শিশুরা …

বাংলার খেলাঃ দাড়িয়াবান্ধা বা গাদন

দাড়িয়াবান্ধা বা গাদন গ্রামবাংলার একটি অত্যন্ত জনপ্রিয় খেলা দাড়িয়াবান্ধা। পাঁচ-সাতজনের দুটি দল নিয়ে দাড়িয়াবান্ধা খেলা হয়ে থাকে। খেলোয়াড়ের সংখ্যার উপর ভিত্তি করে মাঠে ঘর কাটা হয়। ঘরগুলির মধ্যে একটি গাদিঘর ও একটি লবণঘর থাকে। খেলার শুরুতে গাদিঘরে একটি দল এবং অন্য দলের খেলোয়াড়েরা রেখায় রেখায় অবস্থান নেয়। গাদিঘর থেকে …

বাংলার খেলাঃ ডাংগুলি

ডাংগুলি ডাংগুলি খেলা বাংলাদেশের সব জায়গাতেই খুব জনপ্রিয়। দুই দলে ভাগ হয়ে এটি খেলতে হয়। সাধারণত কম বয়সী ছেলে আর কিশোরেরা ডাংগুলি খেলে থাকে। একটি দেড় হাত লম্বা লাঠি এবং এক বিঘত পরিমাণ লম্বা একটি কাঠি হলো খেলার উপকরণ। লম্বা লাঠিটিকে বলে ডান্ডা আর ছোটটিকে বলে গুলি বা …

বাংলার খেলাঃ গোল্লাছুট

  গোল্লাছুট এক সময়ের জনপ্রিয় খেলা ছিল গোল্লাছুট। কিন্তু এ খেলাটি এখন হারিয়ে ফেলেছে নিজের ঐতিহ্য। তোমরা অনেকেই বইয়ের পাতায় গোল্লাছুটের কথা পড়েছ। কিন্তু কখনো কি গোল্লাছুট খেলেছ? আমি কিন্তু অনেক খেলেছি। আমার শৈশবের প্রিয় খেলা ছিল গোল্লাছুট। খুব হ্যাংলা পাতলা ছিলাম। তাই ভালো দৌড়াতে পারতাম। বেশিরভাগ সময় …

বাংলার খেলাঃ কুতকুত

  কুতকুত খেলা কুতকুত গ্রামীন কিশোরী-তরুণীদের অন্যতম প্রধান খেলা। উঠানে শস্য শুকাতে দেবার ফাঁকে কিংবা বিকালের নরম আলোয় গৃহের আঙ্গিনায় কৈশর পেরোনো তরুণীরা কুতকুত খেলায় মেতে ওঠে। বর্ষার পরের নরম মাটিতে মাটির ভাঙ্গা তৈজসপত্রের অংশ দিয়ে দাগ কেটে কুতকুতের জন্য ঘর বানানো হয়। বাংলার গ্রামীণ মেয়েরা যে কোনো ঋতুতেই এই …