ভাপা পিঠার রেসিপি এবং টিপস

ভাঁপা পিঠা বাংলাদেশের একটি ঐতিহ্যবাহী পিঠা যা প্রধানত শীত মৌসুমে প্রস্তুত ও খাওয়া হয়। খুব সহজে সব উপকরণ কাছে থাকলে বানিয়ে ফেলতে পারেন মজাদার ভাপা পিঠা। এটি প্রধানত চালের গুঁড়া, গুড় এবং নারকেল কোরা দিয়ে জলীয় বাষ্পের আঁচে তৈরী করা হয়। হাট বাজারে, রাস্তাঘাটে এমনকী রেস্তরাঁতে আজকাল ভাঁপা পিঠা পাওয়া যায়। শীতের এই মৌসুমে যারা ভাবছেন ভাপাপিঠা খাবেন তাদের জন্য নিচে দেয়া হলো ভাপা পিঠার রেসিপি । 

ভাপা পিঠার রেসিপি

ভাপা পিঠার রেসিপি

উপকরণঃ এক নজরে দেখে নিন কি কি উপকরণ লাগবে আপনার পছন্দের ভাপা পিঠা তৈরি করতে।

  • চালের গুঁড়া এক কেজি,
  • খেজুরের গুড় আধা কেজি,
  • নারিকেল কোরানো ২ কাপ,
  • লবণ সামান্য।

ভাপা পিঠা তৈরির প্রণালীঃ

  • চালের গুঁড়ায় সামান্য লবণ মিশিয়ে হালকা করে পানি ছিটিয়ে ঝুরঝুরে করে মেখে নিতে হবে। মনে রাখতে হবে, যেন দলা না বাঁধে।
  • তারপর একটি বাঁশের বা প্লাস্টিকের চালুনি দিয়ে মাখানো চালের গুঁড়াগুলো চেলে নিতে হয়।
  • এরপর পানি জ্বাল দেওয়ার পাতিলের অর্ধেক পানি দিন। এবার মাঝখানে ছিদ্র করা ঢাকনা বসিয়ে আটা দিয়ে আটকে দিন। যাতে বাষ্প বের হতে না পারে, এখন চুলায় বসিয়ে জ্বাল দিন।
  • পাতলা সুতার দুই টুকরা কাপড় ও ছোট দুটি বাটি নিন। এবার বাটিতে চালের গুঁড়ি দিয়ে মাঝখানে গর্ত করে গুড় ও নারিকেল দিন। আবার চালের গুঁড়া দিয়ে ঢেকে দিন।
  • বাটির মুখ পাতলা কাপড় দিয়ে মুড়ে ফুটন্ত হাঁড়ির মুখের ছিদ্রতে বসিয়ে দিয়ে একটি ডাকনা দিয়ে ডেকে ভাপা পিঠা দুই মিনিট সেদ্ধ করুণ।
  • সিদ্ধ হলে পিঠা উঠিয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন। সেদ্ধ হওয়ার সময় গুড় গলে বাইরে বেরিয়ে আসে সাদা পিঠার ফাকেঁ ফাকেঁ গুড়েঁর উকিঁ মনোরম দেখায় এবং অনেক আকর্ষণীয় করে তোলে।

টিপসঃ  ভাপা পিঠা চালের গুড়া করে সঙ্গে সঙ্গে বানালে ভাল হয়, বাসি গুড়ায় পিঠা ভাল হয়না। শুকনা গুঁড়া দিয়ে বানালে অনেকক্ষণ আগে গুঁড়া পানি ছিটা দিয়ে রেখে পরে বাঁশের বা প্লাস্টিকের চালানিতে চালতে হবে।

Leave a Reply