অতিরিক্ত চুল পড়া রোধ করে যে খাবার গুলি

অতিরিক্ত চুল পড়া  ইদানীং নারী-পুরুষ সকলকেই অনেক বড় সমস্যা হয়ে দাড়িয়েছে। বিভিন্ন কারণে চুল পড়তে পারে। বংশগত, পরিবেশগত, দুশ্চিন্তা, পুষ্টিহীনতা, স্ট্রেস ইত্যাদি নানা কারণে চুল পড়তে পারে।  তবে বর্তমানের বিরূপ আবহাওয়া এবং চুলের প্রতি যথেষ্ট যত্নবান না হওয়ার কারণেই শুরু হয় এই চুল পড়ার সমস্যা। প্রথম দিকে চুল কম পড়লেও আস্তে আস্তে চুল পড়ার হার অনেক বেড়ে যায়। তাই শুরুর দিকে এটি প্রতিরোধ করা সম্ভব হলে, চুল পড়া বন্ধ করা সম্ভব। চুল পড়ার অন্যতম কারণ হলো বাজে খাদ্যাভ্যাস। চুলের জন্য প্রয়োজনীয় পুষ্টি দেহে না পৌঁছালে চুল পড়ে যাওয়ার প্রবণতা বাড়ে। একারণে চুলের পুষ্টি বজায় রাখতে খাদ্যতালিকার দিকে নজর দেওয় উচিত। তাহলে আসুন এবার দেখে নেই চুল পড়া রোধ করে যে খাবার গুলি।

চুল পড়া রোধে খাবার

চুল পড়া রোধে খাবার

ডিম
ডিম হচ্ছে প্রাকৃতিক প্রোটিনের অন্যতম সেরা উৎস। ডিম ভিটামিন বি১২, জিংক, আয়রন, প্রোটিন, বায়োটিন এবং ওমেগা-৬ ফ্যাটি এসিডের সব চাইতে ভালো উৎস যা চুলের জন্য বিশেষভাবে জরুরী। তাই খাদ্যতালিকায় রাখুন ডিম। এছাড়া চুল পড়া রোধ কিংবা চুলের বৃদ্ধির জন্য প্রোটিনযুক্ত খাবারেরও কোন বিকল্প নেই। প্রতিদিনের খাদ্যতালিকায় যাতে প্রোটিনসমৃদ্ধ খাবার থাকে সেদিকেও মনোযোগ দিতে হবে। তাই  প্রতিদিন খাবারের তালিকায় ডিম রাখুন।

বাদাম এবং বীজ জাতীয় খাবার
বাদাম, ফ্লাক্স সীড, আখরোট, তিল প্রভৃতিতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ওমেগা-৩ ফ্যাটি অ্যাসিড। যা চুলের ভেঙ্গে যাওয়া প্রতিরোধ করে।

মাছ
ওমেগা-৩ ফ্যাটি এসিড সমৃদ্ধ মাছ চুলের জন্য অত্যন্ত প্রয়োজনীয় একটি খাদ্য। ওমেগা৩ ফ্যাটি এসিড চুলের গোঁড়া মজবুত করতে সহায়তা করে এবং চুল পড়া রোধ করে। তাই সপ্তাহে অন্তত ৩ দিন খাদ্যতালিকায় মাছ রাখার চেষ্টা করুন।

সবুজ শাক সবজি
শরীরে আয়রনের ঘাটতি পূরণে নিয়মিত পালং শাক এবং অন্যান্য সবুজ শাক সবজি খেতে পারেন। আয়রনের অভাবে অনেক সময় চুল পড়ে যায়। যখন শরীরে আয়রনের ঘাটতি হয় তখন চুলের গোড়ায় পুষ্টির অভাব হয়, চুলের গোড়া আলগা হয়ে চুল পড়া শুরু হয়। তাছাড়া সবুজ শাকে রয়েছে প্রচুর ভিটামিন, মিনারেল এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট যা চুলের গোঁড়া মজবুত করে, মাথার ত্বক ভালো রাখে।

ভিটামিন সি যুক্ত ফল
ভিটামিন সি চুলপড়া রোধ এবং বৃদ্ধির জন্য দারুন উপকারী। যদি নিয়মিত লেবুর রসের শরবত খাওয়া যায় তাহলে তা চুল পড়া রোধে দারুন কার্যকরী হবে। কমলাতেও প্রচুর পরিমানে ভিটামিন সি পাওয়া যায়।

গাজর
গাজরে প্রচুর পরিমানে ভিটামিন এ থাকে যা চুলের ফলিকলকে মজবুত করে এবং চুলকে পাতলা হয়ে যাওয়ার হাত থেকে রক্ষা করে। পাতলা চুলের পড়ে যাওয়ার প্রবণতা বেশি থাকে। তাই চুল পড়া রোধে নিয়মিত গাজর খান।

দুধ এবং দুগ্ধজাত খাবার
দুধ এবং দুগ্ধজাত খাবারে প্রোটিনের পাশাপাশি রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ক্যালসিয়াম যা চুলের বেড়ে উঠা এবং নতুন চুল গজানোর জন্য সবচাইতে জরুরী। তাই চুলের সুস্থতা চাইলে প্রতিদিন দুধ পান করুন।

সম্মানিত পাঠক চুলের পুষ্টি বজায় রাখতে খাদ্যতালিকার দিকে নজর দেওয় উচিত। চুল পড়া প্রতিরোধে ওষুধ নয় বরং নিয়মিতভাবে এই খাবার গুলি খান। এতে আপনার মাথার ত্বকে রক্ত চলাচল বাড়বে। এবং চুল ভেঙ্গে যাওয়া এবং চুল পড়াও কমবে।

Leave a Reply