খাদ্যের উপাদান কয়টি ও কি কি

খাদ্য অনেকগুলো রাসায়নিক উপাদানের সমন্বয়ে গঠিত। এ রাসায়নিক উপাদানগুলোকে খাদ্য উপাদান বলা হয়। কেবলমাত্র একটি উপাদান দিয়ে গঠিত এমন খাদ্যবস্তুর সংখ্যা খুবই কম। এভাবে উপাদান অনুযায়ী খাদ্যবস্তুকে ছয় ভাগে ভাগ করা হয়েছে যথা- শর্করা, আমিষ, স্নেহ বা তেল, খাদ্যপ্রাণ বা ভিটামিন, খনিজ লবন এবং পানি।

মানসম্মত ডায়েট চার্ট, স্বাস্থ্য টিপস এবং পুষ্টিকর খাবারের রেসিপির ভিডিও দেখতে পুষ্টিবাড়ির ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করে রাখুন… ইউটিউব চ্যানেলটিতে প্রবেশ করতে এখানে ক্লিক করুন।

খাদ্যের উপাদান কয়টি ও কি কি

১. শর্করা বা শ্বেতসার – শক্তি উৎপাদনে সহায়তা করে। উৎস- চাল, গম, ভুট্টা, চিড়া, মুড়ি, চিনি, গুড়, আলু ও মূল জাতীয় অন্যান্য খাদ্য।
২. আমিষ বা প্রোটিন – ক্ষয়পূরণ, বৃদ্ধিসাধন ও দেহ গঠন করে। উৎস – মাছ, মাংস, ডিম, দুধ, ডাল, মটর শুঁটি, সীমের বীচি, কাঁঠালের বীচি, বাদাম ইত্যাদি।
৩. স্নেহ বা চর্বি – তাপ ও শক্তি উৎপাদন করে। ঘি, মাখন, তেল, চর্বি ইত্যাদি খাদ্য হল স্নেহজাতীয় খাবার ।
৪. খাদ্যপ্রাণ বা ভিটামিন – রোগ প্রতিরোধ শক্তি বাড়ায়, বিভিন্ন জৈব রাসায়নিক বিক্রিয়ায় উদ্দীপনা যোগায়। বিভিন্ন ফলমূল, শাকসবজি ও বিভিন্ন মসলাজাতীয় খাবারে প্রচুর ভিটামিন থাকে। উৎস – রঙ্গিন শাক-সব্জি ও ফল, ডিম, দুধ, কলিজা ইত্যাদি।
৫. খনিজ লবণ – বিভিন্ন জৈবিক প্রক্রিয়ায় অংশ নেয়। উৎস – রঙ্গিন শাক-সব্জি ও ফল, ডিম, দুধ, কলিজা, মাংস, ছোট মাছ ইত্যাদি।
৩. পানি – দেহে পানির সমতা রক্ষা করে, কোষের গুণাবলি নিয়ন্ত্রণ করে এবং কোষ অঙ্গাণুসমূহকে ধারণ ও তাপের সমতা রক্ষা করে।

সুষম খাদ্য কী? সুষম খাদ্যে কি কি উপাদান থাকে?
যেসব খাদ্যে পরিমাণমতো সব খাদ্য উপাদান যেমন- শর্করা, আমিষ, স্নেহ, ভিটামিন, খনিজ লবণ ও পানি এই ছয়টি উপাদান থাকে তাকে সুষম খাদ্য বা আদর্শ খাদ্য বলে।

Leave a Reply